বিজ্ঞান মানবদেহ সম্পর্কে যেসব প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেনি

আমাদের দৈনন্দিন জীবনের যত সমস্যা তার সবকিছু আমরা বিজ্ঞান দিয়ে ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করি। কিন্তু বিজ্ঞান কি সবসময় সবকিছুর ব্যাখ্যা করতে পারে? উত্তরটা হলো- না। মাঝে মাঝে বিজ্ঞানও হিমশিম খেয়ে যায় আমাদের কিছু কিছু প্রশ্নের কাছে। আজ তেমনই কিছু প্রশ্নের কথা জানবো যেগুলোর উত্তর আজও বিজ্ঞান সঠিকভাবে দিতে পারেনি।
মানুষ কেন লজ্জা পায়?
এই প্রশ্নের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বিজ্ঞানের কোনো স্পষ্ট উত্তর নেই। মানুষ যখন মিথ্যা বলে ধরা পড়ে তখন কেন লজা পায় এই বর্ণনা বিজ্ঞান এখনো দিতে পারেনি। কোনো কোনো বিজ্ঞানী এর উত্তর দিয়েছেন কিন্তু পরিষ্কার নয়, আর এতে অনেক ফাঁক ফোকর রয়েছে।
মানুষ কেন হাসে এবং মজা করে?
ঠিক কী কারণে মানুষ হাসে এবং মজা করে তা এখনো বিজ্ঞানের কাছে পরিষ্কার নয়। অনেক বিজ্ঞানীরা মনে করেন মানসিক চাপ কমাতে এবং সামঞ্জস্য রাখতে হাসির প্রয়োজন।
কিছু মানুষ কেন বাম হাতে লেখে?
কেউই জানে না কেন পৃথিবীর প্রায় ১০% মানুষ বাম হাত দিয়ে লেখে বা ভারী কাজ করে? অনেকে বলেন ভ্যানিশিং টুইন সিনড্রোমের কারণে এরকম হয়ে থাকে। কিন্তু সঠিক উত্তর কারো জানা নেই।
মানুষের কিছু কিছু অঙ্গে চুল আছে কেন?
বিবর্তনের মাধ্যমে মানুষ তাদের শরীরের প্রায় সব চুলই হারিয়েছে। কিন্তু মাথা সহ বিশেষ বিশেষ কিছু জায়গায় চুল আছে। কিন্তু কেন? এর পরিষ্কার কোনো উত্তর এখনো পাওয়া যায়নি। অনেকে মনে করেন সেক্স করার সময় চুলগুলো ঘর্ষণ কমাতে সাহায্য করে।
চুমু কেন যৌন উত্তেজনা সৃষ্টি করে?
চুমু কেন যৌন উত্তেজনা সৃষ্টি করে এ বিষয়ে কেউ জানে না। মানুষের কিছু অনুমান আছে কিন্তু যুক্তিসঙ্গত কোনো কারণ এখন পর্যন্ত কেউ খুঁজে পায়নি। অনেক বিজ্ঞানী মনে করেন এটা অনেকটা টিকার মতো, যেটা প্রাকিতিক। মানুষের মুখের লালায় এক ধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকে যা প্রায় ৮০% সব মানুষের ক্ষেত্রে সমান আর মাত্র ২০% আলাদা। চুমুর মাধ্যমে এই ব্যাকটেরিয়াগুলো এক মানুষ থেকে অন্য মানুষে গিয়ে ইমিউন সিস্টেমে বল প্রয়োগ করে এবং অ্যান্টিবডি তৈরি করে। কিন্তু এটি ধারণামাত্র, এর কোনো বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই।
মানুষ কেন স্বপ্ন দেখে?
ঘুমের প্রায় ২৫% সময় মানুষ স্বপ্ন দেখে। এর বেশিরভাগই অবশ্য মানুষের মনে থাকে না। কিন্তু মানুষ কেন স্বপ্ন দেখে? বিজ্ঞানীরা মনে করেন স্বপ্ন আক্ষরিক চিন্তার মাধ্যমে আমাদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে সাহায্য করে।
সূর্যের তীব্র আলো দেখলে কিছু মানুষ হাঁচি দেয় কেন?
প্রায় এক তৃতীয়াংশ মানুষ সূর্যের তীব্র আলো দেখলে হাঁচি দেয়, কিন্তু বিজ্ঞান বলতে পারেনি ঠিক কেন এমনটি হয়। অনেক বিজ্ঞানী মনে করেন আলোর উদ্দীপনা ও হাঁচির নিউরোলজিকাল মিশ্রণের কারণে এমনটি হয়। এটাকে তারা নাম দিয়েছেন আঁচও সিনড্রোম।
মানুষ কেন শিল্পকর্ম তৈরি করে?
মানুষ স্বাভাবিকভাবে সুন্দর জিনিস উপভোগ করা ছাড়া বাঁচতে পারে না, যদিও তাদের তেমন কোনো প্রয়োজন নেই। বিজ্ঞানীরা মনে করেন সৌন্দর্য মানুষকে খুবই ভালো মানের প্রয়োজনীয় জিনিস তৈরিতে সাহায্য করে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *