মমতাজের গানের রজীকা ভার্সন









মূল গানঃ
বন্ধু যখন বউ লইয়া
আমার বাড়ির সামনে দিয়া
রঙ্গ কইরা হাইট্টা যায়
ফাইট্টা যায় বুকটা ফাইট্টা যায়

রবীন্দ্রনাথ ভার্সনঃ

সখা যবে বঁধু নিয়া
মম বাটীর দ্বার দিয়া
হাঁটিয়া যায়।
মম বক্ষ ফাটিয়া যায়, মম বক্ষ ফাটিয়া যায়।
তার চমকিত আঁখি,
আমি শুধু দেখি
নয়ন হইতে গড়াইয়া পড়ে জল
কী করিবো সখী মোরে আজ বল
সখা হাসিয়া খেলিয়া হাটিয়া যায়
ফাটিয়া যায়, মম বক্ষ ফাটিয়া যায়।

জীবনানন্দ ভার্সনঃ

শোনা গেলো পথ হাঁটিতেছে সে
আমার বাড়ির পাশে
বঁধু হেঁটেছিলো সাথে, শিশুটিও ছিলো।
প্রেম ছিলো, হাসি ছিলো মুখে।
আমার হৃদয়খানি ফাটিয়া গেলো দুঃখে।
আমি থুত্থুরে অন্ধ প্যাচার মতো দেখিলাম-
অসংখ্য নক্ষত্রের সে রাত।
তাহারা হাটিতেছে, ধরিতেছে হাত
সে হাত আমার নয়
আজি ফাটিয়া গেলো এ হৃদয়।

কাজী নজরুল ইসলাম ভার্সনঃ

কোন সে বঁধু হাঁটিয়া গেলো আমার সখার সনে
ব্যাথার আগুন এই বুকে আজ জ্বলিতেছে ক্ষণে ক্ষণে
ধরিয়া আনো তারে
বাধিয়া রাখো কঠিন করিয়া তাহারে আমার দ্বারে।
ফাটাবো তাহার বুক
পাষাণের ন্যায় লইবো কাড়িয়া তাহার সকল সুখ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *