যোগ বিয়োগ

নিকোটিন আর কি পোড়াবে?
              তুই তো পুড়িয়ে গেছিস সব।
কত কৃষ্ণচূড়া দিন যে গেল চলে,
              এখনো আমার ধুসর অবয়ব।

আমি ছিলাম পদ্মপাতার জল,
              তুই ছিলি হয়ে হৃদয় পদ্মপাতা;
বিষাদ মাখিয়ে নক্ষত্র হলি তুই-
              কুহেলিকার লিখতে হল গাথা।

কতখানি সুখ হল তোর পাওয়া?
              কতখানি রয়েই গেল বাকী?
নাকছাবি তোর মুড়তে হলে সোনায়
              ভেবে দেখ আর পুড়াবি নাকি।

একটু শোন, ফিরে আয় আবার-
              ফের জ্বালিয়ে, আরেকটু পুড়িয়ে
খান্ডব করে দে-আমার হিয়া;
              শুদ্ধ করে দে পড়ে থাকা ছাই
তমস্বিনী নক্ষত্র রুপালী আগুন দিয়া।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *